BREAKING

আপনার যা প্রয়োজন এখানে সার্চ করুন

বৃহস্পতিবার, ১০ মার্চ, ২০২২

নিরুদ্দেশ নবম শ্রেণির বাংলা গল্পর গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর |নবম শ্রেণির বাংলা গল্প নিরুদ্দেশ প্রশ্ন উত্তর PDF

নিরুদ্দেশ নবম শ্রেণির বাংলা গল্পর গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর |নবম শ্রেণির বাংলা গল্প  নিরুদ্দেশ প্রশ্ন উত্তর PDF |Class 9 Bengali Golpo question in bengali  pdf


আজ আমি তোমাদের জন্য নিয়ে এসেছি নবম শ্রেণির বাংলা গল্প নিরুদ্দেশ প্রশ্ন উত্তর PDFclass 9 Bengali Golpo question Pdf | WB Class nine Bengali question pdf |WBBSE পরীক্ষা প্রস্তুতির জন্য নবম শ্রেণি বাংলা গল্পর গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর pdf গুরুত্বপূর্ণ ভাবে তোমাকে সাহায্য করবে।


তাই দেড়ি না করে এই পোস্টের নীচে দেওয়া Download লিংকে ক্লিক করে |নবম শ্রেণি বাংলা গল্প নিরুদ্দেশ গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর pdf download । Class ix Bengali Golpo Question Pdf  ডাউনলোড করো । এবং প্রতিদিন বাড়িতে বসে প্রাক্টিস করে থাকতে থাক।ভবিষ্যতে আরো গুরুত্বপূর্ণ Note ,Pdf ,Current Affairs,ও প্রতিদিন মকটেস্ট দিতে আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন।


‘নিরুদ্দেশ’ নবম শ্রেণির বাংলা গল্পর প্রশ্ন উত্তর নিচে দেওয়া হলো।


নিরুদ্দেশ mcq প্রশ্ন

1.


নবম শ্রেণি বাংলা গল্প  1 নম্বরের গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর [একটি বাক্যে উত্তর দাও]

নবম শ্রেণির বাংলা গল্প  নিরুদ্দেশ 1 নং প্রশ্ন উত্তর


১, “দিনাটা ভারী বিশ্রী |”~~~- দিনটা ‘বিশ্রী’ কেন?

উত্তর। শীতের দিন হলেও বাদলার কারণে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন এবং পৃথিবী হয়ে উঠেছে | তাই দিনটা এত ‘বিশ্রী।

২. “একটা আশ্চর্য ব্যাপার দেখেছ?”- “আশ্চির্য ব্যাপার-টি কী ছিল?

উত্তর: ‘আশ্চর্য ব্যাপারটি ছিল খবরের কাগজে একসঙ্গে সাত- সাতটা নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপন বেরােনাে

৩, সােমেশ হঠাৎ এসে পড়ায় কথকের কী সুবিধা হয়েছিল?

উত্তর: সােমেশ হঠাৎ এসে পড়ায় কথকের শীতের মেঘলা দুপুর কাটানাের সুবিধা হয়েছিল ।

৪ কাগজে সাতটি বিজ্ঞাপনের কথা শুনে সােমেশের প্রতিক্রিয়া কী ছিল?

উত্তর: বিজ্ঞাপনের কথা শুনে সােমেশ কোনাে কৌতূহল না দেখিয়ে উদাসীনভাবে সিগারেটের ধোঁয়া ছাড়তে থাকেন।

.5.আমার হাসি পায়।” —কীসে বক্তা হাসি পাওয়ার কথা বলেছেন?

উত্তর: কথক বলেছেন যে কাগজে ‘নিরুদ্দেশ’-এর বিজ্ঞাপনগুলাে দেখলে তার হাসি পায়।

৬. নিরুদ্দেশ' গল্পে ছেলের পীড়াপীড়িতে মা কী করেছিলেন?

উত্তর: ‘নিরুদ্দেশ’ গল্পে ছেলের পীড়াপীড়িতে মা লুকোনাে পুঁজি থেকে টাকা বের করে তাকে দিয়েছিলেন।

৭. ‘নিরুদ্দেশ’ গল্পে বাবা তার থিয়েটার-দেখতে যাওয়া ছেলে ফিরলে কী করবেন বলেছেন?

উত্তর: ‘নিরুদ্দেশ’ গল্পে বাবা তার থিয়েটার দেখে ফেরা ছেলেকে বাড়ি থেকে বের করে দেবেন বলেছেন।

৮. ছেলে নিরুদ্দেশে চলে যাওয়ার পরে মার কী অবস্থা হয়?

উত্তর: ছেলে নিরুদ্দেশে চলে যাওয়ার পরে মা খাওয়া বন্ধ করে দেন এবং বিছানা ছেড়ে ওঠেন না।

8.এ অশান্তির চেয়ে বনবাস ভালাে|”-কে কখন এই সিদ্ধান্তে পৌঁছেছে?

অথবা, “এ অশান্তির চেয়ে বনবাস ভালাে|”—কোন্ অশান্তির কথা বলা হয়েছে?

উত্তর: প্রেমেন্দ্র মিত্রের ‘নিরুদ্দেশ’ গল্পে প্রশ্নোপ্ত মন্তব্যটি করেছিলেন নিরুদ্দিষ্ট ছেলেটির বাবা৷ বেশি রাত করে বাড়ি ফেরায় ছেলেকে বেরিয়ে যেতে বলাতে ছেলেও তক্ষুনি বাড়ি ছেড়ে চলে যায়। এদিকে পুত্রশােকে মা খাওয়া বন্ধ করে দেন। পরদিন সন্ধ্যাবেলা অফিস থেকে ফিরে বাবা দেখেন যে মা বিছানা থেকে উঠবেন না বলে পণ করেছেন। এই সমস্ত ঘটনায় বিব্রত হয়েই বাবা এমন মন্তব্য করেন |


.বাবা ছেলের খোঁজ পাওয়ার জন্য কী করতে গিয়েছিলেন?

উত্তর: বাবা ছেলের খোঁজ পাওয়ার জন্য খবরের কাগজে বিজ্ঞাপন দিতে গিয়েছিলেন।

২. বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য নিরুদ্দিষ্ট ছেলেটির বাবার কাছে কী কী জানতে চাওয়া হয়েছিল?

উত্তর: বিজ্ঞাপন দেওয়ার জন্য নিরুদ্দিষ্ট ছেলেটির বাবার কাছে স্পেসের পরিমাপ ও বিজ্ঞাপনের কপি এনেছেন কিনা জানতে চাওয়া হয়েছিল।

৩, নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপনে বাবা কী লিখতে চেয়েছিলেন ?

উত্তর: নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপনে বাবা ছেলেকে ফিরে আসার আবেদন জানাতে চেয়েছিলেন |

8. ছেলের নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপন দেওয়ার সময়ে বাবা সবথেকে বেশি কী নিয়ে চিন্তিত ছিলেন?

উত্তর: বিজ্ঞাপন দেওয়ার সময়ে নিরুদ্দিষ্ট ছেলেটির মায়ের জলগ্রহণ না করার বিষয়টি নিয়েই তার বাবা সবথেকে বেশি চিন্তিত ছিলেন।

৫, খবরের কাগজে বিজ্ঞাপন প্রকাশের আগেই কী ঘটনা ঘটল?

উত্তর: খবরের কাগজে বিজ্ঞাপন প্রকাশের আগেই নিরুদ্দিষ্ট ছেলেটি বাড়িতে ফিরে এসেছিল।

৬. ছেলেটি বাড়িতে ফিরে এসেছিল কেন?

উত্তর: ছেলেটি তার গােটাকতক বই নিয়ে যাওয়ার জন্য বাড়িতে ফিরে এসেছিল।

৭, “অত আদর ভালাে নয়!-- কে কাকে বলেছেন?

উত্তর: প্রেমেন্দ্র মিত্র রচিত ‘ নিরুদ্দেশ' গল্পে বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়া ও শ্রাবার ফিরে আসা ছেলের মা তার বাবাকে আলােচ্য কথাটি বলেছেন।


১, “পুরানাে খবরের কাগজের ফাইল যদি উলটে দেখাে...” —কী দেখা যাবে?

উত্তর: পুরােনাে খবরের কাগজের ফাইল ওলটালে দেখা যাবে দিনের পর দিন একটি বিশেষ নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপন ধারাবাহিকভাবে বেরিয়েছে।

2.“মনে হয় ছাপার লেখায় সত্যি যেন কান পাতলে কাতর আর্তনাদ শোনা যাবে।”– এই আর্তনাদ কীসের জন্য ছিল?

উত্তর: এই আর্তনাদ ছিল নিরুদ্দিষ্ট ছেলের ফিরে আসার জন্য মায়ের কাতর আবেদন। 

৩. নিরুদ্দিষ্ট ছেলেটির পরিচয়ের কী বিশেষ চিহ্ন ছিল?[শান্তিপুর মিউনিসিপ্যাল হাই স্কুল]

উত্তর: নিরুদ্দিষ্ট ছেলেটির পরিচয়ের বিশেষ চিহ্ন হিসেবে তার ঘাড়ের দিকে ডান কানের কাছে ছিল একটি বড়াে জডুল।

8, “...তা মনে কোরাে না |””—কী মনে না করার কথা বলা হয়েছে?

উত্তর: শােভন নামের ছেলেটি বাড়ি ছেড়েছিল কোনাে অভিমানের বশে, মনটা মনে না করার কথা বলা হয়েছে |


1., ... এতটা আশঙ্কা করেনি।”—কী আশঙ্কা না করার কথা বলা\ হয়েছে?

উত্তর: দুবছর নিরুদ্দেশে থাকার ফলে তার কিছু পরিবর্তন হলেও জমিদারির কর্মচারীরা তাকে চিনতে পারবে না এটা শােভন আশঙ্কা করেনি।

8, “নায়েব মশাই তার দিকে খানিক তীক্ষ্ণদৃষ্টিতে তাকিয়ে থেকে তারপর একটু স্মিতহাস্যে বললেন ...”—নায়েবমশাই কী বলেছিলেন?

উত্তর: নায়েবমশাই শােভনকে তাড়াহুড়াে না করে বারবাড়িতে বিশ্রাম করতে বলেছিলেন।

৫, “... সে যেন আশ্বস্ত হলাে |’কে কীসে আশ্বস্ত হল?

উত্তর: শােভন পরিচিত খাজাঞি মশাইকে দেখে আশ্বস্ত হল।

৬. “মিছিমিছি কেলেংকারি করে লাভ নেই |”—কাকে ‘কেলেংকারি’ বলা হয়েছে?

উত্তর: জোর করে শােভনের বাড়ির ভিতরে যাওয়ার চেষ্টাকে বৃদ্ধ নায়েবমশাই ‘কেলেংকারি’ বলেছেন।

৭. “....একটা ড্রয়ার খুলে তিনি একটা জিনিস এনে শােভনের হাতে দিলেন।” -এখানে কী দেওয়ার কথা বলা হয়েছে?

উত্তর: ড্রয়ার খুলে নায়েবমশাইয়ের সােমেশকে শােভনের পুরােনাে ফোটো দেওয়ার কথা এখানে বলা হয়েছে।

৮, “নাঃ, এ অসহ্য।”—কী অসহ্য বলা হয়েছে?

উত্তর: যেভাবে ফোটো দেখিয়ে শােভনকে পরীক্ষা করা হচ্ছিল যে, তার নিজের ছবি সে নিজে চিনতে পারে কিনা তা শােভনের কাছে অসহ্য মনে হয়েছিল।

১, “শােভন উদ্ভ্রান্তভাবে সকলের দিকে চেয়ে দেখল।”—শােভন তাকিয়ে কী দেখেছিল?

উত্তর: শােভন উদ্ভ্রান্তভাবে সকলের দিকে তাকিয়ে দেখেছিল যে সকলের দৃষ্টিতেই তার প্রতি অবিশ্বাস রয়েছে।

১০, শােভনের মৃত্যু কীভাবে হয়েছে বলে নায়েবমশাই জানিয়েছিল?

উত্তর: শােভনের মৃত্যু গাড়ি চাপা পড়ে অপঘাতে হয়েছে বলে নায়েবমশাই জানিয়েছিলেন।

নিরুদ্দেশ 3 নম্বরের গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর

নবম শ্রেণির বাংলা গল্প নিরুদ্দেশ 3 নং প্রশ্ন উত্তর


১“আমরা কি এতদিন রামযাত্রা বার করেছি!”-কে কেন মন্তব্যটি করেছে?

উত্তর: প্রেমেন্দ্র মিত্রের ‘নিরুদ্দেশ’ গল্পে কোনাে-একটি ছেলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেলে তার মা খাওয়া-দাওয়া ত্যাগ করেন এবং বিছানা নেন! বিব্রত বাবা খবরের কাগজের অফিসে গিয়ে হাজির হন এবং সেখানে এক কর্মী ভদ্রলােককে জানান যে তিনি তাদের কাগজে একটা খবর বের করতে চান। তাতে সেই নিরীহ চেহারার ভদ্রলােকটি ব্যঙ্গের সুরে বলেন যে তাদের খবরগুলাে বুঝি ছেলেটির বাবার পছন্দ হচ্ছে না। একইসঙ্গে প্রশ্নোপ্ত মন্তব্যটিও করেন তিনি।


5.বিজ্ঞাপনের পেছনে অনেক সত্যকার ট্র্যাজিডি থাকে।”—মন্তব্যটি ব্যা করাে

উত্তর: প্রেমেন্দ্র মিত্রের ‘নিরুদ্দেশ’ গল্পে কথক খবরের কাগজের নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপনের প্রসঙ্গে বলেন যে এই নিরুদ্দিষ্টরা অনেক সময়ই রাগের মাথায় বা অভিমান করে বাড়ি ছাড়ে, তারপরে কিছুদিন বাদে রাগ আর অভিমান কমলে বাড়ি ফিরেও আসে | কিন্তু বন্ধু সােমেশের মনে হয় বিষয়টি এত সহজনয়। বহু  নিরুদ্দেশের ঘটনার পিছনেই থাকে জীবন থেকে চিরকালের মতাে হারিয়ে যাওয়ার ঘটনা | সেসব ক্ষেত্রে হয় ফিরে আসা সম্ভব হয় না, বা ফিরে আসার পথ বন্ধ হয়ে যায়।

৫. হঠাৎ করে বিজ্ঞাপন বন্ধ হওয়ার কারণ কী ছিল?

[ বাঁকুড়া মিশন গার্লস হাই স্কুল]

উত্তর: ছেলের ফিরে না-আসার চূড়ান্ত হতাশা থেকেই বিজ্ঞাপন বন্ধ হয়েছিল, কারণ নিরুদ্দিষ্টের মায়ের শরীর এতটাই খারাপ হয়েছিল যে বিজ্ঞাপন অর্থহীন হয়ে গিয়েছিল।

6.... তার উদাসীন মনও বিচলিত হয়ে উঠল। এর কারণ কী?

উত্তর: যেদিন কাগজে নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপন বন্ধ হয়ে গেল সেদিন শােভনের মনও বিচলিত হয়ে উঠল।

\


১যেন কান পাতলে কাতর আর্তনাদ শােনা যাবে।”- মন্তব্যটি ব্যাখ্যা করাে।

উত্তর: প্রেমেন্দ্র মিত্রের ‘নিরুদ্দেশ’ গল্পে পুরােনাে খবরের কাগজে বহুদিন ধরে প্রকাশিত একটি বিজ্ঞাপনের কথা রয়েছে। বিজ্ঞাপনটি নিরুদ্দেশের। একজন মা কাতরভারের ছেলেকে ফিরে আসার জন্য অনুরােধ করেছেন। সেখানে অস্পষ্ট আড়ষ্ট ভাষায় প্রকাশিত হয়েছে মায়ের মনের আকুলতা।

একসময়ে সেই আকুলতা মিলিয়ে যায়। এরপর সংবাদপত্রের পৃষ্ঠায় ভেসে ওঠে পিতার কম্পিত, ধীর এবং শান্ত স্বর—যেখানে মার অসুস্থতার কথা জানিয়ে ছেলেকে ফিরে আসতে বলা হয়। এইসব অনুরােধ, আবেদনই আর্তনাদের মতাে শােনায়।

৩“শােভন এই অবস্থাতে না হেসে পারলে না।”—শােভনের হাসির কারণ কী ছিল?

[মহিষাদল রাজ হাই স্কুল]

উত্তর: শােভন মা বাবার কাছে যেতে চাইলে নায়েবমশাই তাকে নিবৃত্ত করার জন্য বলেন যে, তাদের কাছে খবর আছে শােভন সাত দিন আগেই মারা গিয়েছে। উদ্ভ্রান্ত শােভন এই কথা শুনেই হেসে ফেলে। সে নিজে সশরীরে উপস্থিত, আর তাকেই কিনা তার মৃত্যুসংবাদ শােনানাে হচ্ছে—এই ঘটনা

শােভনকে হাসতে বাধ্য করে। কণ্ঠস্বরে বিদ্রুপ মিশিয়ে তাই সে জানতে চায় শােভন কীভাবে মারা গেল।


১.সে মুখের বেদনাময় বিমূঢ়তা শােভনের বুকে ছুরির মতাে বিধল ।”—কোন্ মুখের কথা বলা হয়েছে? প্রসঙ্গটি উল্লেখ করাে।

উত্তর: ‘নিরুদ্দেশ’ গল্পের উল্লিখিত অংশে শােভনের বৃদ্ধ বাবার মুখের বেদনাময় বিমূঢ়তার কথা বলা হয়েছে।

বৃদ্ধ নায়েবমশাই যখন নিরুদ্দিষ্ট শােভনকে তারই মৃত্যুসংবাদ শােনাচ্ছিলেন সেইসময় সে তার বাবাকে বাড়ি থেকে বেরােতে দেখে। বাবাকে দেখে তার ঝড়ে ভাঙা গাছের মতােই বিধবস্ত মনে হয়। সকলে কিছু বােঝার আগেই শােভন দৌড়ে ঘর থেকে বের হয়ে যায়৷ ‘বাবা’ বলে বৃদ্ধকে ডাকে। আর সেই গলার আওয়াজ শুনে বৃদ্ধ থমকে দাঁড়ান। তখন তার প্রতিক্রিয়া উল্লেখ করতে গিয়েই মন্তব্যটি করা হয়েছে |


২. “শােভনকে একটা কাজ করতে হবে।”—কোন্ কাজের কথা বলা হয়েছে?

উত্তর: নায়েবমশাই গলার আওয়াজে মিনতি আর হাতে অনেকগুলােটাকার নােট নিয়ে শােভনকে বলেছিলেন এই ‘কাজ’-এর কথা | তা হল বাড়ির কী মৃতপ্রায়। ছেলের মৃত্যুসংবাদ তিনি শােনেননি। তাই ছেলেকে দেখারnআশা নিয়ে তিনি আজও বেঁচে আছেন। শােভনকে তার হারানাে ছেলে হয়ে একবার দেখা দিতে হবে, কারণ তার সঙ্গে হারানাে ছেলেটির প্রকৃতই মিল আছে।



নিরুদ্দেশ বড় প্রশ্ন উত্তর,

নবম শ্রেণির বাংলা গল্প  5 নং প্রশ্ন উত্তর


1. নিরুদ্দেশ' গল্প অবলম্বনে শােভন চরিত্রটি বিশ্লেষণ করাে।

উত্তর: প্রেমেন্দ্র মিত্রের 'নিরুদ্দেশ’ গল্পে কথকের বন্ধু সৌমেশ যে নিরুদ্দেশ-বিষয়ক উপকাহিনিটি বলেছে  তারই প্রধান চরিত্র শােভন।

 

পরিচয়: শােভন ছিল এক প্রাচীন জমিদার বংশের একমাত্র উত্তরাধিকারী এবং সে জমিদারি ক্ষয়িষ্ণু নয়। অনেক দুর্দিনের ভিতরেও তা নিজেকে রক্ষা করতে সমর্থ হয়েছে। শােভন ছিল ষােলাে-সতেরাে বছর বয়সের একটি ছেলে, দোহারা গড়ন। নিরুদ্দেশের বিজ্ঞাপনে তার পরিচয় দিতে গিয়ে বলা হয়েছে যে, ডান কানের কাছে একটি জভুল\ আছে।

নিরুদ্দেশের কারণ: সােমেশের কথা থেকে জানা যায় যে, কোনাে অভিমান নয়, শােভন বাড়ি ছেড়েছিল সংসারের প্রতি তার আকর্ষণ না থাকার কারণে। পৃথিবীতে এক ধরনের মানুষ আছে যারা কোনাে কিছুতেই বাঁধা পড়ে না শােভন ছিল সেরকম মানুষ।

শােভনের ট্র্যাজেডি: দুবছর পরে বাড়ি ফিরে এসে শােভন এক অদ্ভুত পরিস্থিতির মুখােমুখি হয়। বাড়ির পুরােনাে নায়েবমশাই কিংবা খাজাঞিমশাই কেউই তাকে চিনতে পারেননি। তাকে বারবাড়িতে থাকতে বলা হয়। শােভনকে শুনতে হয় তার নিজেরই মৃত্যুসংবাদ। এমনকি বৃদ্ধ বাবাও তাকে চিনতে পারেন না| আর সব থেকে ট্র্যাজিক মুহূর্তটি আসে যখন শােভনের হাতে কিছু টাকা দিয়ে নায়েবমশাই বলেন যে তাকে মা-এর সামনে শােভনের ভূমিকায় অভিনয় করতে হবে। আসল পরিচয়কে অস্বীকার করে তাকে একটা মিথ্যা কাহিনির নায়ক করে তােলা হয়।

শােভন এবং সােমেশ: গল্পের সমাপ্তি এই ইঙ্গিত দিয়ে যায় যে, সােমেশই শােভন। কারণ, সােমেশেরও কানের কাছে জডুল ছিল, আর ইঙ্গিতপূর্ণ ভাবে সােমেশ জানিয়েছে—“সেই জন্যেই গল্প বানানাে সহজ হলাে।”




[TAG]:   নবম শ্রেণি নিরুদ্দেশ গল্প pdf,নিরুদ্দেশ গল্প mcq,নিরুদ্দেশ বড় প্রশ্ন উত্তর,নবম শ্রেণি,নবম শ্রেণির বাংলা গল্প প্রশ্ন উত্তর,নবম শ্রেণির বাংলা গল্প,নবম শ্রেণির বাংলা গল্প 3 নং প্রশ্ন উত্তর,নবম শ্রেণির বাংলা গল্প  বড় প্রশ্ন উত্তর,নবম শ্রেণির বাংলা গল্প 1 প্রশ্ন উত্তর,Class 9 Bengali Golpo question in bengali,







কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন