BREAKING

আপনার যা প্রয়োজন এখানে সার্চ করুন

বৃহস্পতিবার, ১০ মার্চ, ২০২২

নােঙর নবম শ্রেণির বাংলা কবিতার গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর |নবম শ্রেণির বাংলা কবিতা প্রশ্ন উত্তর PDF

নােঙর নবম শ্রেণির বাংলা কবিতার গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর |নবম শ্রেণির বাংলা কবিতা  প্রশ্ন উত্তর PDF |Class 9 Bengali Kobita question in bengali  pdf


আজ আমি তোমাদের জন্য নিয়ে এসেছি নবম শ্রেণির বাংলা কবিতা নােঙর প্রশ্ন উত্তর PDFclass 9 Bengali Kobita question Pdf | WB Class nine Bengali question pdf |WBBSE পরীক্ষা প্রস্তুতির জন্য নবম শ্রেণি বাংলা কবিতাের গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর pdf গুরুত্বপূর্ণ ভাবে তোমাকে সাহায্য করবে।


তাই দেড়ি না করে এই পোস্টের নীচে দেওয়া Download লিংকে ক্লিক করে |নবম শ্রেণি বাংলা কবিতা নােঙর গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর pdf download । Class ix Bengali Kobita Question Pdf  ডাউনলোড করো । এবং প্রতিদিন বাড়িতে বসে প্রাক্টিস করে থাকতে থাক।ভবিষ্যতে আরো গুরুত্বপূর্ণ Note ,Pdf ,Current Affairs,ও প্রতিদিন মকটেস্ট দিতে আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন।


‘নােঙর’ নবম শ্রেণির বাংলা কবিতার প্রশ্ন উত্তর নিচে দেওয়া হলো।


নােঙর mcq প্রশ্ন

1.

2.



নবম শ্রেণি বাংলা কবিতা  1 নম্বরের গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর [একটি বাক্যে উত্তর দাও]

নবম শ্রেণির বাংলা কবিতা নােঙর 1 নং প্রশ্ন উত্তর

১. ‘নােঙর' কবিতাটি যে মূলগ্রন্থের অন্তর্গত তার নাম লেখো।

উত্তর: ‘ নােঙর' কবিতাটি কবি অজিত দত্তের যে মূলগ্রন্থের অন্তর্বর্ত তার নাম শাদা মেঘ কালাে পাহাড় (১৯৭০)।

২. অজিত দত্ত কোন সময়ের কবি?

উত্তর: অজিত দত্ত বিশ শতকের তিরিশ-চল্লিশ দশকের কৰি |

৩, কবি অজিত দত্তের দুটি কাব্যগ্রন্থের নাম লেখো |

উত্তর: কবি অজিত দত্ত রচিত দুটি কাব্যগ্রন্থ হল—কুসুমের মসি(১৯৩০), ও পাতালকন্যা (১৯৩৮)।

৪. অজিত দত্ত কোন বিখ্যাত পত্রিকাকােষ্ঠীর কবি ছিলেন?

উত্তর: অজিত দত্ত 'কল্লোল' পত্রিকাগোষ্ঠীর কবি ছিলেন |

৫. অজিত দত্তের সমকালীন দুজন বিখ্যাত কবির নাম লেখো |

উত্তর: কবি অজিত দত্তের সমসাময়িক দুজন বিখ্যাত কবি হলেন বুদ্ধদেব বসু এবং প্রেমেন্দ্র মিত্র।

৬. “পাড়ি দিতে দূর সিন্ধুপারে”—কবি কীসের মাধ্যমে পাড়ি দিতে চান?

উত্তর: কবি নৌকার মাধ্যমে দূর সিন্ধুপারে পাড়ি দিতে চান।

৭. ‘দূর সিন্ধুপারে পাড়ি দিতে চেয়েও কবি ব্যর্থ হন কেন?

উত্তর: দূর সিন্ধুপারে পাড়ি দিতে চেয়েও কবি ব্যর্থ হন কারণ তার নৌকার নােঙর তটের কিনারে পড়ে গেছে।

৮, “সারারাত মিছে দাঁড় টানি”– সারারাত দাড় টানা কেমন করে মিছে[ গাজল এইচ এন এম হাই স্কুল]

উত্তর: কবির নৌকা তটের কিনারে নােঙরে বাঁধা পড়েছে, দাড় টেনে তাকেহয়ে যায়?এগােনাে যায় না।ফুলে উঠে-

১. “জোয়ারের ঢেউগুলি ফুলে ফুলে ওঠে'— জোয়ারের ঢেউকী করে?

উত্তর: জোয়ারের ঢেউগুলি ফুলে ফুলে ওঠে আর কবির নৌকায় মাথা ঠুকেসমুদ্রের দিকে ছুটে যায়।

১০, “তারপর ভাটার শােষণ"—‘ভাটার শােষণ’ কী করে?

উত্তর: ‘ভাটার শােষণ’ স্রোতের প্রবল প্রাণ আহরণ করে অর্থাৎ জলপ্রবাহেরতীব্রগতিকে স্তিমিত করে।

১১. “আমার বাণিজ্য-তরী বাঁধা পড়ে আছে।”—কবির বাণিজ্য- তরিকোথায় কীভাবে বাঁধা পড়ে আছে?

উত্তর: জোয়ারভাটায় বাঁধা তটের কাছে কবির বাণিজ্যতরি নােঙরে বাঁধা পড়ে আছে |

১. 'নােঙর' কবিতায় দাড় টানা ও মাস্তুলে পাল বাধা সত্ত্বেও কী হল না এবং কেন হল না)

উত্তর: দাঁড় টানা ও মাসুলে পাল বাঁধা সত্ত্বেও নৌকা এগােল না, কারণ নােঙরের কাছিতে নৌকা বাঁধা পড়ে আছে।

২. কবির সপ্তসিন্ধুপারে পাড়ি দেওয়ার সংকল্প পূরণ হয় না কেন?

উত্তর: তটের কিনারায় নােঙর পড়ে যাওয়ায় কবির সপ্তসিন্ধুপারে পাড়ি দেওয়ার সংকল্প পূরণ হয় না।

৩, 'নােঙর' কবিতায় কবির জীবনের নিস্তব্ধ মুহূর্তগুলি কেমন?

[মহিষাদল রাজ হাই স্কুল]

উত্তর: নােঙর' কবিতায় কবির জীবনের নিস্তব্ধ মুহূর্তগুলি সাগরগর্জনে কেঁপে ওঠে এবং প্রতিবার দাঁড় টানায় কবি স্রোতের বিদ্রুপধ্বনি শােনেন।

৪. কবি কখন স্রোতের বিদ্রুপ শােনেন?

উত্তর: প্রতিবার যখন কবি স্রোতের মধ্য দিয়ে দাঁড় টানেন তখন স্রোতের বিদ্রুপ শােনেন।

৫, ‘তারার দিকে চেয়ে কবি কী করেন?

উত্তর: ‘তারার দিকে চেয়ে কবি দিকের নিশানা করেন |

৬, সপ্তসিন্ধুপারে কবির যাওয়ার উদ্দেশ্য কী?

উত্তর: সপ্তসিন্ধুপারে কবি তরি ভরা পণ্য নিয়ে পাড়ি দিতে চান।

7.& “সারারাত তুলু দাঁড় টানি।''—এই 'তবু’ শব্দটি কেন কবি ব্যবহার.

উত্তর: তটের কিনারায় নােঙর পড়ে গেলেও যেহেতু দাঁড় টানা চলতেই থাকে, সেহেতু সেই বিরামহীনতাকে বােঝানাের জন্যই ‘তবু শব্দটিকে করেছেন? ব্যবহার করা হয়েছে।

৮, নােঙর' কবিতায় ‘নাঙর' ও 'নৌকা' কীসের প্রতীক? (বাঁকুড়া জেলা স্কুল

উত্তর: নােঙর কবিতায় নােঙর' বন্ধন বা ফিতির প্রতীক এবং 'নৌকা' গতির প্রতীক।



নােঙর 3 নম্বরের গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন উত্তর

নবম শ্রেণির বাংলা কবিতা নােঙর 3 নং প্রশ্ন উত্তর


১নোঙর গিয়েছে পড়ে তটের কিনারে।”—এখানে কবির আক্ষেপ কীভাবে প্রকাশিত হয়েছে?

অথবা, “নােঙর গিয়েছে পড়ে তটের কিনারে।”—মন্তব্যটির তাৎপর্য [বালিগঞ্জ গভঃ হাই স্কুল]

উত্তর: কবি সুদূরের পিয়াসি৷ তার মধ্যে একটি চঞ্চল মন আছে, যেটি) অজানা-অচেনার উদ্দেশ্যে পাড়ি দিতে চায় দূর সমুদ্রপারে। কিন্তু ব্যক্তিজীবনে তিনি নানা কর্মের বন্ধনে বাঁধা পড়ে আছেন| সংসারের বিভিন্ন দায়িত্ব- কর্তব্যে তার দৈনন্দিন জীবন বাঁধা| কবির রােমান্টিক মন সমস্ত বন্ধন থেকে মুক্তি চায়, ছুটে যেতে চায় স্বপ্ন-কল্পনার মায়াবী জগতে। কিন্তু মন চাইলেও বাস্তবকে উপেক্ষা করে সেখানে যাওয়া সম্ভব নয়।


2.“সারারাত মিছে দাঁড় টানি, / মিছে দাঁড় টানি।”—দাঁড় টানাকে কবি মছে বলেছেন কেন?

[আরামবাগ গার্লস হাই স্কুল]

উত্তর: যে স্বপ্নময় রূপকথার দেশের কল্পনা কবির মনকে প্রতি মুহূর্তে চঞ্চল করে তােলে, বাস্তবে কবির পক্ষে সেখানে পৌঁছােনাে সম্ভব হয় না। তবু কবির সুদূর পিয়াসি মন আশায় বুক বেঁধে সারারাত ধরে কল্পনার জাল বুনে চলে। কিন্তু কবির সচেতন সত্তা জানে, ‘নােঙর গিয়েছে পড়ে তটের কিনারে'।

অর্থাৎ জীবনের নৌকা দায়দায়িত্বপূর্ণ কর্মমুখর সংসারে বাঁধা পড়েছে। সে নৌকা আর চলবে না। তাই দাড় টানা বৃথা।


'৫আমার বাণিজ্য-তরী বাঁধা পড়ে আছে|''— কথাটির তাৎপর্য লেখাে।

[বর্ধমান টাউন স্কুল]

উত্তর: কবি তার রচিত সাহিত্যকীর্তিগুলি নিয়ে ভেসে যেতে চান দূরে- দূরান্তরে। সাতসমুদ্রের পাড়ের সেই সুদূর জগতে কবি মেতে উঠবেন সৃষ্টিশীল কাব্যরচনায়। সংসারের বাঁধন ছিন্ন করে কবি চলে যাবেন কাঙ্ক্ষিত গন্তব্যে। এই আশায় কবি প্রতিদিন বুক বাঁধেন, যেন তিনি নৌকার দাঁড় টেনে গন্তব্যে

চলেছেন৷ কিন্তু, পরমুহূর্তেই তার মনে পড়ে যায়, বাস্তব জীবন ও সংসারের দায়িত্ব কর্তব্য ত্যাগ করে তিনি কোনােদিনই গন্তব্যে যেতে পারবেন না | তাই গভীর হতাশার সাথে কবি আলােচ্য উক্তিটি করেছেন। 


1.নােঙরের কাছি বাঁধা তন্তু এ নৌকা ত্রিকাল।'—নৌকা কেন রিকাল নােঙরের কাছিতে বাঁধা? (হড়া ভবনাথ ইন্সটিটিউশন ফক্স গার্লস]

উত্তর: মানুষ মূলত সামাজিক ও সাংসারিক জীব। সমাজ-সংসারের কর্ত ও দায়িত্রে বাঁধনে সে সবসময় জড়িয়ে থাকে। আমাদের দৈনন্দিন জীবন কর্মময়। কঠোর বাস্তবের সংঘাতে জীবনের অনেক স্বপ্ন কল্পনাই অপূর্ণ থেকে যায়। কবির জীবনও বাস্তব জগৎ ও সংসারের বাঁধনে বাঁধা পড়ে আছে| কিন্তু সৃষ্টিশীল মানুষের থাকে কল্পনাপ্রবণ মন—মে মন বারবার বাস্তবের বন্ধন ছিন্ন করে দূর অজানায় পাড়ি দিতে চায়। কিন্তু জীবনতরি বাস্তবের দায়িত্ব-কর্তব্যের নােঙরে চিরকাল বাঁধাই পড়ে থাকে।


৩.স্রোতের বিদ্রুপ শুনি প্রতিবার দাঁড়ের নিক্ষেপে |’—“স্রোতের বিদ্রুপ বলতে কবি কী বােঝাতে চেয়েছেন?

[বেলদা গঙ্গাধর একাডেমি; শ্যামমুখী বালিকা শিক্ষানিকেতন]

উত্তর: কবি নৌকা নিয়ে দূর সমুদ্রে পাড়ি দিতে চান। কিন্তু তার সেই নৌকো। তটের কিনারে নােঙরে বাঁধা পড়ে গেছে| কবির মন বাধা অগ্রাহ্য করে দাঁড় টেনে চলে। প্রতিবার দাঁড় টানলে যে শব্দ ওঠে তা যেন স্রোতের ঠাট্টা-উপহাস। স্রোত গতিশীল, কিন্তু কবির জীবনতরি আটকা পড়ে আছে। কবি চাইলেও সাংসারিক বন্ধন ছিন্ন করে সুদূরের আহ্বানে নৌকা ভাসাতে পারছেন না | তাই স্রোত কবির এই থমকে থাকাকে ব্যঙ্গবিদ্রুপে বিদ্ধ করে চলে।


নােঙর বড় প্রশ্ন উত্তর,

নবম শ্রেণির বাংলা কবিতা  5 নং প্রশ্ন উত্তর


1.“নােঙর গিয়েছে পড়ে তটের কিনারে।'—‘নােঙর’ এখানে কীসের প্রতীক? কবি নৌকা নিয়ে কোথায় যেতে চান? কবির আকাঙ্ক্ষা ও আক্ষেপ কীভাবে প্রকাশিত হয়েছে? Rj S ১+ ২+ ২ [সুনীতি একাডেমি]

অথবা, “নােঙর গিয়েছে পড়ে তটের কিনারে'—‘নােঙর' বলতে কী বােঝ? নােঙর তটের কিনারে পড়ে গিয়েছে বলতে কী বােঝানাে হয়েছে?১+৪ [চুঁচুড়া দেশবন্ধু মেমােরিয়াল হাই স্কুল]

উত্তর: কবি অজিত দত্ত রচিত ‘নােঙর' কবিতায় নােঙর হল জীবনের বিভিন্ন বন্ধন বা স্থিতিশীলতার প্রতীক।। কবি নৌকা নিয়ে যেতে চান সুদূর সাতসাগরের পাড়ে৷ বাস্তব জীবনের বাধাবন্ধন থেকে অনেক দূরে কল্পনালােকে পাড়ি দিতে চান কবি। মধ্যযুগের সওদাগরদের মতাে কবি ভাসিয়ে দিতে চান তার সৃষ্টিসম্পদে ভরা নৌকা| রােজকার একঘেয়ে জীবনযাপন থেকে ছুটি নিয়ে তার কল্পনাপ্রবণ মন দূর অচেনা অজানা দেশে পাড়ি দিতে চায়।। কবির আকাঙ্ক্ষা সাতসমুদ্রপাড়ে পাড়ি দেওয়ার। কবির ভাবুক মন সংসারের দায়িত্ব কর্তব্যের বাঁধন মানতে চায় না। কর্মময়, সাংসারিক জীবনের বাঁধন তাকে কঠিনভাবে বেঁধে রাখে। স্রোতের গতি কবির এই দায়িত্বের বন্ধনকে বিদ্রুপ করে, কিন্তু কবি নিরুপায়, অসহায়। এই দাঁড় টানা বৃথা জেনেও তিনি অবিরাম দাড় টেনে চলেন। তাই কবির তীব্র আক্ষেপ

“তরী ভরা পণ্য নিয়ে পাড়ি দিতে সপ্তসিন্ধুপারে, নােঙর কখন জানি পড়ে গেছে তটের কিনারে।

সারারাত তবু দাঁড় টানি, তবু দাড় টানি।।” এভাবেই ‘ নােঙর’ কবিতাটি কবির আকাঙ্ক্ষার অপূর্ণতা ও আক্ষেপের বেদনায় ধূসর হয়ে উঠেছে।

৩“সারারাত তবু দাড় টানি”—কবি সারারাত দাড় টানেন কেন? ‘র কথাটি বলার কারণ কী? এই দাঁড় টানার মধ্য দিয়ে কবির কোন্ মানসিক১+২+২

উত্তর: কবি অজিত দত্ত ‘নােঙর' কবিতায় বলেছেন যে নৌকাভরা পণ্য

নিয়ে তিনি সাতসাগরের পাড়ে পাড়ি দিতে চান। তাই তিনি সারারাত দাঁড় টানেন।

} ‘তবু' শব্দের অর্থ ‘তা সত্ত্বেও'| পণ্যভরা নৌকা নিয়ে সাতসাগরপারে যাওয়ার বাসনা ছিল কবির। কিন্তু কখন তটের কিনারে নােঙর পড়ে গেছে তিনি বুঝতেও পারেননি। নৌকা যে আর তট ছেড়ে যাবেনা কখনও, তা তিনি জানেন। তবু মন যেন এই সত্য মানতে চায় না। কঠিন সত্যটি জানা সত্ত্বেও কবি সারারাত দাঁড় টেনে চলেন। এই কারণেই ‘তবু কথাটি বলা হয়েছে। । এই দাঁড় টানার মধ্য দিয়ে কবির অদম্য মানসিকতার পরিচয় পাওয়া যায়। তিনি জানেন, সমাজ-সংসারের নানা বন্ধন তাকে আষ্টেপৃষ্ঠে বেঁধে রেখেছে। তবু তার কল্পনাবিলাসী মন বাঁধনহারা জীবনের স্বাদ পেতে চায়। তার চারপাশ বাস্তব। বলে এই দাঁড় টানা বৃথা, কিন্তু তার অবচেতন মন আশা-স্বপ্নের জাল বুনে চলে। তাই তিনি অবিরাম দাড় টেনে চলেন। কবি জানেন, তার বাসনা হয়তো কোনােদিনই পূরণ হবে না, তবু স্বপ্নময় জীবনের অনুসন্ধানে তার ক্লান্তি নেই। দূর সাগরে পাড়ি দেওয়ার স্বপ্নই তাকে বাঁচিয়ে রাখে।


৫.নােঙর’ একটি প্রতীকী কবিতা-আলােচনা করাে।

 প্রতীককে ইংরেজিতে বলে Symbol | টিহ। যখন মনের ভাবকে প্রকাশ করে, তখন তাকে বলে প্রতীক।

কবি অজিত দত্তর ' নােঙর' কবিতায় নানা প্রতীকে হৃদয়ের অনুভূতির ব্যঞ্জনা ধরা পড়েছে। 'নােঙর'-কে তিনি বন্ধনের প্রতীকরূপে আর পরিচিত বাস্তবজগৎকে নদীর তটের প্রতীকরূপে ব্যবহার করেছেন। বাস্তব প্রয়ােজনের জগতের বাইরের জগৎকে তিনি 'দূর সিন্ধুপার' বা 'সপ্তসিন্ধুপার' বলে অভিহিত করেছেন। সেই বহুদূর কায়নিক জগতে পাড়ি দিতে চেয়েও কবির জীবন-নৌকা নােঙরে বাঁধা পড়েছে। জোয়ারের ঢেউগুলি কবির জীবনের স্বপ্ন-আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতীক নৌকায় মাথা ঠুকে অর্থাৎ কবির মনের দরজায় মাথা ঠুকে ব্যর্থ হয়ে তারা সমুদ্রের দিকে ছুটে যায়। সেই দূর সমুদ্রে পাড়ি দিতে চেয়েছিলেন কবিও। কাছি যেন বাস্তবজীবনের নানা সম্পর্কের সূত্র। জোয়ারভাটা হল জীবনের উত্থানপতন, আশা-নিরাশার প্রতীক। নােঙর যেমন স্থিতি বা বন্ধন, তেমনি স্রোত হল। গতির প্রতীক। 'বাণিজ্য', 'পণ্য' এগুলি হল লাভক্ষতিময় জীবন-জীবিকা ও সৃষ্টিসম্পদের প্রতীক। এভাবেই প্রতীকের সাহায্যে তৈরি করা হয়েছে কবিতার ব্যঞ্জনা। তাই সবদিক বিচার করে নােঙর'-কে একটি আদর্শ প্রতীকী কবিতা বলা যায়।




[TAG]:   নবম শ্রেণি নােঙর কবিতা pdf,নােঙর কবিতা mcq,নােঙর বড় প্রশ্ন উত্তর,নবম শ্রেণি,নবম শ্রেণির বাংলা কবিতা প্রশ্ন উত্তর,নবম শ্রেণির বাংলা কবিতা,নবম শ্রেণির বাংলা কবিতা 3 নং প্রশ্ন উত্তর,নবম শ্রেণির বাংলা কবিতা  বড় প্রশ্ন উত্তর,নবম শ্রেণির বাংলা কবিতা 1 প্রশ্ন উত্তর,Class 9 Bengali question in bengali,







কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন